fbpx
নিহত রবিউলের পুড়া লাশ

ভয়ংকর সংবাদ : যুবককে ধরে পুড়িয়ে মারলো এলাকাবাসী

দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলায় এক নৈশপ্রহরীকে গলাকেটে হত্যা এবং অপরজনকে ছুরিকাঘাতে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বিক্ষুব্ধ জনতা এক যুবককে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। তার নাম রবিউল ইসলাম (৩২)। বৃহস্পতিবার ভোরে বীরগঞ্জ পৌরসভার শালবাগান ও হাটখোলা মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নৈশ প্রহরী হলেন— বীরগঞ্জ পৌরসভার জেলখানা মোড় এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে সুরুজ আলী (৪০)। আর আগুনে পুড়িয়ে মারা যুবক রবিউল একই এলাকার তারা মিয়ার ছেলে। আহত আরেক নৈশপ্রহরী হলেন— বীরগঞ্জ হাটখোলা এলাকার মধুমিয়ার ছেলে শহীদ (৩৮)।

জানা গেছে, ভোরে বীরগঞ্জ পৌরসভার শালবাগান মোড় নৈশপ্রহরীর দায়িত্ব পালন করছিলেন সুরুজ আলী। এসময় দুর্বৃত্তরা তাকে গলাকেটে হত্যা করে। এর পরপরই বীরগঞ্জ হাটখোলা মোড়ে পালনকালে নৈশপ্রহরী শহীদকে ছুরিকাঘাত করে দুর্বৃত্তরা।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, এ ঘটনার পর স্থানীয়রা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন। ভোর ৫টা থেকে তারা দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও মহাসড়ক অবরোধ করে রাখেন। বিক্ষুব্ধ জনতা জেলখানা মোড় এলাকায় রবিউল ইসলামের বাড়িতে রক্তমাখা কাপড় দেখতে পেয়ে তাকে খুঁজতে থাকেন।

সকাল ৮টায় রবিউলকে কাহারোল উপজেলার ১৩ মাইল গড়েয়া নামক স্থানে খুঁজে পাওয়া যায়। বিক্ষুব্ধ জনতা তাকে ধরে নিয়ে বীরগঞ্জ শালবাগান মোড়ে এনে পেটাতে থাকে। এক পর্যায়ের আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করে।

উভয় ঘটনার পর এলাকায় উত্তেজনার ছড়িয়ে পড়ে। সকাল থেকেই দফায় দফায় ওই মহাসড়ক অবরোধ করে স্থানীয়রা। এতে করে মহাসড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার পর সকাল ১০টা থেকে যান চলাচল শুরু হয়। বীরগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ শাকিলা পারভীন দুইজন নিহত হওয়ার বিষয় নিশ্চিত করে জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

-নয়া দিগন্ত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Optimization WordPress Plugins & Solutions by W3 EDGE