fbpx

মাটির নিচে ডিম পুঁতে সেদ্ধ করবেন যেভাবে! (ভিডিও)

ডিম একটি বহুমুখী ও সর্বজনীন খাদ্য। দামে সস্তা হলেও এর পুষ্টিগুণ কিন্তু অনেক। তবে ডিম যে কত ভাবে পোচ, ফ্রাই বা সেদ্ধ করা যায়; তা কিন্তু চিন্তারও বাইরে। আপনি হয়তো জানেন না, মাটির নিচে গর্ত খুঁড়েও ডিম সেদ্ধ করা যায়? শুধু তাই নয় ছেলেবেলার পিকনিক করার মজাটাও পেয়ে যাবেন এই প্রক্রিয়া থেকে।

দৃশ্যত কিছু বাচ্চা শিক্ষণীয় বিষয় হিসেবে এই উপায়টা আয়ত্ব করে ফেলেছে। রান্নার এই পদ্ধতিটা বেশ সহজ এবং একই সাথে ব্যতিক্রমীও বটে। চলুন আর দেরি না করে, বাচ্চাগুলোর কাছ থেকে আমরাও শিখে নিই ডিম সেদ্ধ করার একটি প্রথাবিরুদ্ধ নিয়ম।

প্রথমেই বাচ্চারা মাটিতে একটি গর্ত খোঁড়ে, যতক্ষণ না এটা দেখতে ছোট একটা গুহার মত লাগে। পদ্ধতি অনুসারে, ছোট গুহার মত গর্তটিকে চুলা হিসেবে ব্যবহার করা হয়। জ্বালানির জন্য বড় আকারের ফুটো রেখে চুলোর ছাদে একটি ফুটো রাখা হয় উত্তাপ ছড়িয়ে পড়ার জন্য।

এরপর ছোট গর্তটিতে তারা ডিমগুলো স্তূপাকারে রেখে দেয়। গর্তটি যখন ডিম দিয়ে পুরোপুরি ভরে যায়, তখন বাচ্চারা সবুজ পাতা ও কাদার আস্তরণ দিয়ে চুলাটিকে ঢেকে দেয়। রান্না শুরুর আগে কাদার স্তর ভেদ করে, কিছু ফুটো তৈরি করা হয় যাতে করে বাষ্প নির্গত হতে পারে।

এরপর শুরু হয় পাটকাঠি দিয়ে জ্বাল দেয়া। একটু পরই জ্বলন্ত পাটকাঠির কারণে ধোঁয়া ও বাষ্প বেরোতে শুরু করে। ডিম সেদ্ধ করা শেষ হলে, কাদা এবং সবুজ পাতার আস্তরণ সরিয়ে ফেলা হয়। তারপর ডিমের খোসা ছাড়ালেই পাওয়া যায় সুস্বাদু সেদ্ধ ডিম। বাজি ধরে বলা যায়, এটার স্বাদ কিন্তু একটু হলেও ভিন্নধর্মী ও চমকপ্রদ। তো এই হল বাচ্চাদের কাছ থেকে পাওয়া ব্যতিক্রমী একটি রান্না পদ্ধতি। সূত্র: গুডটাইমস

আপনি দেখেছেন কি?

বিস্কিটের প্যাকেটে এই বাচ্চা মেয়েটি কে জানেন?

ছোটবেলা থেকে দু’একবার হলেও নিশ্চয়ই পার্লে-জি বিস্কিট খেয়েছেন। অন্তত তিন-চার প্রজন্ম ভারতীয়দের ব্রেকফাস্ট থেকে শুরু …