fbpx

মা-বাবা হয়ে সন্তানের সাথে যে কাজগুলো একদম করা উচিত নয়!

বাবা-মা সবাই হয়তো হতে পারেন। কিন্তু আদর্শ বাবা মা সবাই হয়ে উঠতে পারেন না। আদর্শ বাবা মা হতে হলে সন্তানদের প্রতি কিছু দায়িত্ব পালন করতে হয়।

পাশাপাশি এমন কিছু আচরণ করা কখনোই উচিৎ না যেগুলো সন্তানদের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। আসুন জেনে নিই সন্তানদের প্রতি এমন ৪ টি আচরণ যা একেবারেই করা উচিৎ না।

১. গায়ে হাত তোলা :

শিশুরা অনেকভাবেই বিরক্ত করে থাকে। বিভিন্ন জিনিসপত্র অগোছালো করা থেকে শুরু করে নানা ধরনের দুষ্টমি করে থাকে। এসব কারণে অনেক বাবা মা-ই বিরক্ত হয়ে বাচ্চাদের মারধর করে থাকেন।

কিন্তু এটা একেবারেই ভুল কাজ। ছোট বয়সে বাচ্চাদের মানসিক অবস্থা অনেক শক্তিশালী থাকে। তাদেরকে বিভিন্ন কারণে মারধর করলে তা তাদের মস্তিষ্কে আঘাত আনে। এ কারণে বাচ্চাদের গায়ে কখনই হাত তোলা উচিৎ না।

২.বকা দেয়া :

বিভিন্ন কারণে বাবা মায়েরা বাচ্চাদের বকা দিয়ে থাকেন। কিন্তু এটা করা একেবারে উচিৎ না। কেননা এর ফলে বাচ্চাদের মস্তিষ্কে বাজে প্রভাব পড়ে। এছাড়া অনেক বাবা মা-ই বিভিন্ন গালিগালাজ করে বকা দিয়ে থাকেন। এতে বাচ্চাদের বাবা মার প্রতি খারাপ ধারণা হতে পারে। ফলে এই ধরনের আচরণ বাবা মায়ের একেবারেই করা উচিৎ না।

৩. লোভ দেখানো :

অনেক বাবা মাই দেখা যায় ছোট্ট সন্তানদের বিভিন্ন লোভ দেখিয়ে কাজ করে নেন। এই ধরুন বলে যে এই কাজটা করো তাহলে চকেলেট দিব। কিন্তু বাচ্চাদের মাঝে লোভ বিষয়টা স্থায়ী হয়ে যায়। এরপরে তারা বিনিময় ছাড়া কোনো কাজই করে না। পাশাপাশি লোভের মত খারাপ স্বাভাবটি থেকে যায়।

৪. ঝগড়া করা :

অনেক সময়ই বাবা মায়ের মধ্যে ঝগড়া হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে বাবা মায়ের যে আচরণটি একেবারেই করা উচিৎ না সেটি হল সন্তানদের সামনে ঝগড়া করা।

এর ফলে বাচ্চাদের মনে এক ধরনের ভয় তৈরি হয় পাশাপাশি তাদের মানসিক অবস্থারও বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হতে পারে। তাই আদর্শ বাবা মা হতে হলে সন্তানদের প্রতি এই ধরনের আচরণগুলো একেবারেই উচিৎ না।

আপনি দেখেছেন কি?

আপনার শিশু আঙুল চোষে? জেনে নিন প্রতিকার

আঙুল চোষা এমন একটি অভ্যাস যা অনেক শিশুর মধ্যে দেখা যায়। তবে এতে চিন্তিত হওয়ার …